SHARE
TWEET

shab-e-barat

hasancse1991 Apr 20th, 2019 132 Never
Not a member of Pastebin yet? Sign Up, it unlocks many cool features!
  1. {
  2.   "button_text": "শবে বরাতের করণীয় ও বর্জনীয়ের ব্যাপারে বিস্তারিত জানতে",
  3.   "button_hints": "ভিজিট করুন",
  4.   "button_url": "https://hellohasan.com/2016/07/04/শবেবরাত-হালুয়া-রুটি-বিদআ/",
  5.   "content_message": "লাইলাতুন নিসফ মিন শাবান তথা শবে বরাতের ফজিলতের ব্যাপারে বেশ কিছু হাদীস পাওয়া যায়। হাদীসগুলোর বর্ণনা সূত্র দুর্বল হলেও অনেকগুলো দুর্বল হাদীস একত্রে শক্তিশালী দলীল হিসাবে কাজ করে। এরাতের দলীল হিসাবে গ্রহণের জন্য উপযুক্ত হাদীসের আলোকে ফজিলত সম্পর্কে আমরা জানতে পারি \"এ রাতে শিরককারী ও হিংসা-বিদ্বেষপোষণকারী ব্যক্তি ব্যতীত সকলকে আল্লাহ ক্ষমা করে দিবেন\"। কোনো কোনো হাদীসে আত্মহননকারীকেও ক্ষমা করা হবে না এটা পাওয়া যায়। ড. আবদুল্লাহ জাহাঙ্গীর স্যার বলেন \"এটা আল্লাহর একটা বাড়তি রহমত। বান্দার জন্য একটা বোনাস পয়েন্ট। শিরক-হিংসা মুক্ত থাকলে সবাই এই সাধারণ ক্ষমার আওতায় থাকবে\"\n\nএরাতে দীর্ঘ নামাজ পড়ার ব্যাপারে যয়ীফ পর্যায়ের হাদীস পাওয়া যায়। কবর জিয়ারতের ব্যাপারেও। একই কথা পরদিন রোজা রাখার ব্যাপারেও। আর হালুয়া-রুটি খাওয়ার প্রচলন তো পুরোপুরি ভাবে বানোয়াট কাহিনীর উপর পালন করা একটা বিদআত। আরেকটা বড় বিদআত হচ্ছে এই রাত্রে গোসল করাকে নেক আমল মনে করা।\n\nআমাদের দেশে এই রাতকে যে পরিমাণ গুরুত্ব দেয়া হয় হাদীস শরীফে সে পরিমাণ গুরুত্ব দেয়া হয় নি। আমরা এটাকে যত গুরুত্ব দিয়ে পালন করি এটা আসলেও ততটা গুরুত্ব বহন করলে অসংখ্য সাহাবীর থেকে এই রাতের ফজিলত ও বিশেষ আমলের ব্যাপারে হাদীস পাওয়া যেত। অপর পক্ষে লাইলাতুল ক্বদরের ফজিলতের ব্যাপারে আলাদা একটা সূরা রয়েছে, অসংখ্য সহীহ হাদীস রয়েছে। আমরা এটাকে গুরুত্ব কম দেই। আমাদের উচিত কুরআন-হাদীসে যেই আমলকে যতটুকু গুরুত্ব দেয়া হয়েছে সেটাকে ততটুকুই গুরুত্ব দেয়া।\nআল্লাহ আমাদেরকে সকল প্রকার শিরক ও বিদআত থেকে হেফাজত করুন।",
  6.   "content_title": "শবে বরাতে করণীয় ও বর্জনীয়"
  7. }
RAW Paste Data
We use cookies for various purposes including analytics. By continuing to use Pastebin, you agree to our use of cookies as described in the Cookies Policy. OK, I Understand
 
Top